সন্তান আছে তবু তারা নায়িকা

বিনোদন.কম।।
সন্তান কি রুপালি পর্দার নায়িকাদের পথের কাঁটা? সন্তান আগলেও কি নায়িকা হওয়া যায়? নাকি মায়েরা ছিটকে পড়েন প্রতিযোগিতার ইঁদুর দৌড় থেকে? মৌসুমীকে দিয়েই শুরু করা যাক। আজ থেকে ২২ বছর আগে মা হয়েছেন গত দুই যুগের অন্যতম প্রভাবশালী এ নায়িকা। তখন তার ক্যারিয়ার মাত্র তিন বছরের। সন্তান হওয়ার পরও গ্ল্যামার্স নায়িকার চরিত্র করতে পিছপা হননি মৌসুমী। তার ক্যারিয়ারের অন্যতম শ্রেষ্ঠ জুটি মান্নার সঙ্গে। মান্না-মৌসুমী জুটির জন্ম হয় মৌসুমীর প্রথম সন্তান যখন কোলে ঠিক তখন।

কিন্তু মৌসুমীর সমসাময়িক শাবনূর ও পপি ক্যারিয়ারে ‘আত্মঘাতী’ ভেবে বিয়ে থেকে দূরে থাকেন। শেষ পর্যন্ত বছর চারেক আগে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন শাবনূর। একটি পুত্র সন্তানও এসেছে তার কোলজুড়ে। ততদিনে নায়িকা হিসেবে শাবনূরের আর চাওয়া পাওয়ার কিছু বাকি নেই। সামাজিক অনুষ্ঠান ছাড়া সিনেমার কোথাও নেই নব্বই দশকের সবচেয়ে দাপুটে নায়িকাটি।

পপি এখনো নায়িকা চরিত্রে নিজেকে উপযুক্ত মনে করেন। যদিও ইন্ডাস্ট্রিতে চলতি বছর তার বয়স হলো একুশ। বিয়ে করেননি, ধরে রেখেছেন ফিগারও, যেন এসব কারণেই নির্মাতারা কখনো সখনো তাকে নিয়ে ছবি করে ফেলেন। নেহাত বাজার মন্দা না হলে এখন পপির হাতে ছবির সংখ্যা একেবারে ফেলে দেয়ার মতো থাকত না বলেই চলচ্চিত্রপাড়ার লোকজনদের ভাবনা।

মৌসুমী-শাবনূর-পপিকে বাদ দিলে থাকেন কেবল পূর্ণিমা। টেলিভিশনে বেশ চাহিদা পূর্ণিমার। চলচ্চিত্র থেকেও ডাক পান। নাচেন নানা অনুষ্ঠানে। কিন্তু মায়ের দায়িত্ব পালন করতেই সময় ব্যয় করে ফেলেন সুন্দরী নায়িকার অভিধা পাওয়া পূর্ণিমা। এক পুত্র সন্তানের মা পূর্ণিমা চলচ্চিত্র অভিনয় ছেড়েছেন কয়েক বছর হয়ে গেল। নায়িকা তো দূরে থাক, চরিত্রাভিনেত্রী হিসেবেও তাকে পাওয়া যায়নি। নব্বই দশকের নায়িকাদের আলোচনা শেষ হওয়ার পর আসুন গেল দশকের কথায়। অপু বিশ্বাসের চেয়ে দর্শকপ্রিয় আর কেই বা ছিলেন এই এক দশকে! গত বছর অপুও নাম লেখালেন মায়ের খাতায়।

দেশজুড়ে সেলিব্রেটি বনে যাওয়া শিশুপুত্র আব্রাম খান জয়কে নিয়েই এখন অপুর পৃথিবী। কারণ স্বামী শাকিব খানের সঙ্গে হয়ে গেছে তার ছাড়াছাড়ি। এই পুত্রকে ঘরে রেখে এখন নিয়মিত স্টেজ শো করছেন অপু। করছেন টিভি অনুষ্ঠানও। যাচ্ছেন শো করতে বিদেশের মাটিতে। শেষ অবধি ছবিও করছেন বিরতি ভেঙে। কয়েকটি ছবির মহরত করেছেন অপু। সাইমন ও বাপ্পির সঙ্গে দুটি ছবিতে দেখা যাবে তাকে। বাপ্পির বিপরীতে ‘শ^শুরবাড়ি জিন্দাবাদ’র শুটিংও শুরু হয়ে গেছে। শাকিববিহীন কেমন হবে অপুর ক্যারিয়ার? প্রায় ৭০টি ছবির নায়ক শাকিবকে ছাড়া দর্শকদের মন পাবেন কি অপু? পুনরায় চাঙ্গা হবে কি অপুর ক্যারিয়ার? প্রশ্নগুলোর উত্তর লুকিয়ে আছে ভবিষ্যতের গর্ভে।

অপুর সমসাময়িক নিপুণ মা হয়েছেন বলতে গেলে ক্যারিয়ারের শুরুতেই। মা হওয়ার ব্যাপারটি এক রকম লুকায়িত ছিল বলে নিপুণের ক্যারিয়ারে তেমন কোনো ফাড়া দেখা দেয়নি। এখন নিপুণের মেয়ে বড় হয়েছেন। বলতে গেলে কিশোরী। নিপুণও আগের মতো নেচে গেয়ে দর্শক মনোরঞ্জন থেকে বিরত। নিজের জন্য চরিত্র বাছাই করতে শিখেছেন। তবুও প্রেমিকার চরিত্র এলে, ড্যান্স ফ্লোরে নামার পরিস্থিতি এলে, সেখানেও সরগরম নিপুণ। নিজ থেকে নায়িকা পরিচয়কে দাফন করতে চান না ‘রিকশাওয়ালার প্রেম’র নায়িকা। সন্তান হওয়ার পর নায়িকার ক্যারিয়ার টেকে নাকি ধস নামে, অপুকে মাথায় রেখে এই আলোচনা যখন তুঙ্গে, তখন দৃশ্যপটে হাজির হলেন বাঁধন। লাক্স সুন্দরী বাঁধন ২০১০ সালে সজলের নায়িকা হয়েছিলেন ‘গহীন অরণ্যে’। এতদিন ছিলেন চলচ্চিত্র থেকে দূরে।

সম্প্রতি রায়হান রাফি পরিচালিত ‘দহনে’ জুনিয়র সিয়ামের নায়িকা হওয়ার ঘোষণা এসেছে। বর্ণাঢ্য মহরতে ছবির আরেক নায়িকা পূজা চেরীর পাশে বাঁধনকে যেন বয়স্কই লাগছিল! কিন্তু সদ্য ডিভোর্সি বাঁধন এক কন্যা সন্তানের মা হয়েও গø্যামারের দ্যুতি ছড়াচ্ছিলেন ঠিকই। এখন দেখার পালা সন্তান সামলে ফিল্ম ক্যারিয়ারকে কতটা আপন করে নিতে পারেন বাঁধন। সন্তানের মা হয়েও দর্শকদের সিনেমা হলের টিকেট ঘরে আনতে পারেন কিনা বাঁধন, সেই পরীক্ষার ফল জানা যাবে আগামী বছর।

আগের সংবাদ