…এরপর খিচুড়ি খেলাম

বিনোদন.কম।।
যৌথ প্রযোজনার ‘অঙ্গার’ শিরোনামের সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন চিত্রনায়িকা জলি । ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত এ সিনেমায় জলির বিপরীতে ছিলেন কলকাতার ওম। এরপর
জলি-শুভ জুটির ‘নিয়তি’ সিনেমাটি মুক্তি পায়। জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত এ সিনেমাটিও বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়। সর্বশেষ ইমদাদুল হক মিলনের উপন্যাস অবলম্বনে ‘মেয়েটি এখন কোথায় যাবে’তে জলিকে দেখা যায়। সবগুলো ছবিতেই জলির সফলতা ছিল এভারেজ।

অন্যদিকে, চিত্রনায়িকা তানহা মৌমাছির প্রথম চলচ্চিত্র রয়েল খান ‘যে গল্পে ভালোবাসা নেই।’ তবে তিনি রূপালি পর্দায় অভিষিক্ত হন ‘অনেক দামে কেনা’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে। আর সবচেয়ে আলোচনায় আসেন শাকিব খানের বিপরীতে চুক্তিবধ হয়ে। গত ১১ অক্টোবর ‘মামলা হামলা ঝামেলা’ ছবিতে শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন তানহা।

তবে কথা এসব নয়। জলি ও মৌমাছি বান্ধবী। আরেক বান্ধবী নুসরাত জিয়া। সবারই নাকি গতকাল মন খারাপ ছিল। তিন বান্ধবীর মন খারাপ। মন ভালো করার উপায় হিসেবে তিনজনেই এক সাথে সময় কাটানোর উদ্যোগ নিলেন। ত্রয়ী একসাথে হয়েই নাকি মন ভালো হয়ে গেল। মৌমাছি লিখেছেন, ‘সব পাগলিগুলো একসঙ্গে। সবার মন খারাপ ছিল। সবাই একসঙ্গে হওয়ার পর মন ভালো হয়ে গেল। এরপর খিচুড়ি খেলাম।’

অন্যরা যা পড়ছেন-
নাঈম-মম বড় ভাইয়ের বাংলোতে

আগের সংবাদ
পরের সংবাদ