ছবিপ্রতি শাকিব খানের পারিশ্রমিক কত, তারপর কে আছেন?

২৪বিবিডি.কম।।
একজন তারকার ব্যক্তিগত বলে কোন জীবন নেই! কারণ ভক্তরা তাদের সম্পর্কে জানেত চায়। জানতে চায় তারা কি খায়, কোন গাড়িতে চড়ে, কোন বাড়িতে থাকেনসহ একটি ছবিতে কত টাকা পারিশ্রমিক নেয়? নায়কদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক নেন শাকিব খান। তারপর আছেন বাপ্পি চৌধুরী। দেখেনিন আপনার প্রিয় তারকার পারিশ্রমিকের হার।

শাকিব খান
ঢাকাই ছবির শীর্ষ নায়ক, সুপারস্টার। স্বাভাবিক কারণে ছবিপ্রতি তিনিই সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক নেন। ক্যারিয়ারের ১ যুগ পার করে আসা শাকিব খান ১৯৯৬ সালে শুরুতে ১ থেকে ২ লাখ টাকায় কাজ করলেও ২০০৬ সালে ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবির মাধ্যমে নিজের পারিশ্রমিক বাড়িয়ে দেন। মাঝে কিছুদিন ৪০ লাখ টাকা পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন। এরপর সিনেমার মন্দার কারণে ২০১২ সালের দিকে তার পারিশ্রমিক কমে ২০ লাখে চলে এসেছিল। এখন চলচ্চিত্রের অবস্থা আবারও ভালো হতে চলেছে। শাকিব খানও বাড়িয়ে দিয়েছেন পারিশ্রমিক।এখন তিনি ছবিপ্রতি ৩০ থেকে ৪০ লাখ টাকা পারিশ্রমিক নিচ্ছেন। তবে তার যাতায়াত ও আপ্যায়ন খরচ কিন্তু আলাদা।

বাপ্পি চৌধুরী
বাপ্পির শুরুটা ২০১২ সালে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘ভালোবাসার রঙ’ ছবির মাধ্যমে। শুরুর দিকে তার পারিশ্রমিক দেওয়া হতো মাসিক বেতনে। জাজ থেকে বেরিয়ে আসার পর এ নায়ক ছবি প্রতি প্রথমে ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা পারিশ্রমিক নিলেও এখন নিচ্ছেন ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা করে।

রিয়াজ
নব্বই দশকে দিলীপ বিশ্বাসের ‘অজান্তে’ ছবির মাধ্যমে ৫০ হাজার টাকা পারিশ্রমিকে বড় পর্দায় আসা এই নায়ক এক সময় জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ওঠেন এবং ছবি প্রতি ৮ লাখ টাকা পর্যন্ত পারিশ্রমিক নেন।

ফেরদৌস
১৯৯৭ সালে ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় আসা এই নায়ক শুরু থেকেই দর্শক মন জয় করে ৫ থেকে ৭ লাখ টাকা পর্যন্ত ছবি প্রতি পারিশ্রমিক নেন। কলকাতায়ও প্রায় সমপরিমাণ অঙ্কের পারিশ্রমিকে কাজ করেন তিনি।

মিশা সওদাগর
১৯৮৬ সালে এফডিসির নতুন মুখের সন্ধানে প্রতিযোগিতায় রুপালি পর্দায় আসা ঢালিউডের শীর্ষ খলনায়ক মিশা সওদাগর। তিনি ছবি প্রতি ৫ থেকে ৭ লাখ টাকা পর্যন্ত পারিশ্রমিক নেন।

আরিফিন শুভ
নাটক থেকে সিনেমায় আসেন আরিফিন শুভ। এই নায়ক ছবি প্রতি নিচ্ছেন ৫ থেকে ৭ লাখ টাকা করে।

সাইমন সাদিক
২০১০ সালে জাকির হোসেন রাজুর ‘জ্বী হুজুর’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক এই নায়কের। প্রথমে ৩ লাখ টাকা করে পারিশ্রমিক নিলেও এখন নিচ্ছেন ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা করে।

জায়েদ খান
২০০৭ সালে মো. হান্নান পরিচালিত ‘ভালোবাসা ভালোবাসা’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় আসা এই নায়ক প্রথম ছবিতে ১ লাখ টাকা পারিশ্রমিক নিলেও পরে ৪ লাখ টাকা পর্যন্ত ছবি প্রতি নেন।
অন্যরা
শিপন, ইমন, নিরব, সাগর, নিলয়, আরজুসহ অন্যরা নেন ২ থেকে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত পারিশ্রমিক। অন্যদিকে জাজের হাত ধরে চলচ্চিত্রে আসেন রোশান। জাজ মাল্টিমিডিয়া কর্তৃক বেতনভুক্ত অভিনয়শিল্পী হিসেবে কাজ করেন তিনি। তাদের মাসিক হারে পারিশ্রমিক দেয় জাজ মাল্টিমিডিয়া।

আগের সংবাদ
পরের সংবাদ