৪০ সিনেমা হল দিয়েই শাকিবকে টক্কর দিচ্ছেন পরীমণি

২৪বিবিডি.কম।। বিশেষ।।
চলচ্চিত্র সব সময়ই নায়ক নির্ভর। বিশেষ করে উপমহাদেশে। এখানে নায়িকা নির্ভর ছবি নির্মাণ হয় হাতেগোনা। বলিউডে যেমন চলচ্চিত্রের নাম উঠলেই চলে আসে সালমান, শাহরুখ কিংবা আমির খানের নাম। তেমনি বাংলাদেশে আছেন শকিব খান। অথচ সেই শাকিব খানের সঙ্গেই এবার লড়াইয়ে নেমেছেন হালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরিমণি। ভিন্ন ধাঁচের এবং নায়িকা নির্ভর গল্পে অভিনয় করে আগেই নিজের জাত চিনিয়েছেন পরী।
এবার ঈদে মুক্তি পেয়েছে তিনটি ছবি। এরমধ্যে রংবাজ ও অহংকার ছবি দুটি শাকিব খানের। অন্যদিকে সোনাবন্ধু নামের ছবিতে আছেন পরীমণি। তাই লড়াইটা শাকিব বনাম পরীর। আর এই লড়াইয়ে মাত্র ৪০টি সিনেমা হল নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছেন পরী। জাহাঙ্গীর আলম সুমন পরিচালিত ফোক ঘরনার ছবিটি দেখতে ঢাকার ও ঢাকার বাইরে হল মুখী দর্শক। পরী বলেন, সোনাবন্ধু ফোক ঘরানার সঙ্গীতনির্ভর চলচ্চিত্র। এই ছবিতে আমি কাজল চরিত্রে অভিনয় করছি। আশা করি দর্শকের ভালো লাগবে।

 

 

ছবিতে ১০টির মতো গান আছে। পুরনো ফোকগানগুলোকে আধুনিকভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। যেমন: ‘ওকি ও বন্ধু কাজল ভ্রমরারে কোন দিন আসিবেন বন্ধু কইয়া যাও রে’গানটি। শুভ টেলিফিল্মস’র ব্যানারে নির্মিত হয়েছে এটি। কাহিনী লিখেছেন মাহবুবা শাহরীন আর চিত্রনাট্য মমর রুবেলের। ছবিতে পরীমনির বিপরীতে কাজ করেছেন ডিএ তায়েব। আরও আছেন চিত্রনায়িকা পপি।
রোববার বিকেলে সোনাবন্ধু ফ্যান ক্লাব ঠাকুরগাঁও শহরের রোড সুগার মিলের প্রায় শতাধিক যুবক বলাকা সিনেমা হলে গিয়ে দেখেছেন ছবিটি। সেখানে ছবিটি দেখার জন্য উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়।
ঠাকুরগাঁও বলাকা সিনেপ্লেক্সের দায়িত্বে থাকা নুরুজ্জামান নুরু জানান, আকাশ-সংস্কৃতি উন্মুক্ত হয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশের নির্মাতারা নকল সিনেমা বানানো শুরু করেন এবং দর্শক এই সিনেমাগুলো না দেখার কারণে সিনেমা হল বন্ধ হওয়া শুরু করেছে। কিন্তু সম্প্রতি কিছু বাংলা সিনেমার কারণে হলের সেই জৌলুস ফিরে এসেছে। গ্রামীণ পটভূমিতে তৈরি ‘সোনাবন্ধু’ ছবি আসলেই অসাধারণ।

আগের সংবাদ
পরের সংবাদ